বিশেষ প্রতিনিধি: নোয়াখালীর সোনাইমুড়ির মানিক্যনগর মহিলা দাখিল মাদ্রাসার নব নির্মিত একাডেমিক ভবনের নামফলক ভাংচুর এবং সন্ত্রাস, চাঁদাবাজের বিরুদ্ধে মাদ্রসা কর্তৃপক্ষ ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে মাদ্রাসার সামনের সড়কে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে।

মাদ্রাসা ভবনের নামফলক ভাংচুরের প্রতিবাদ করায় হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলার হুমকি দেয়ার অভিযোগ করে থানায় অভিযোগ করেন নাইম হাসান নামের স্থানীয় এক যুবক।

অভিযোগে নাইম হাসান স্থানীয় সংসদ সদস্য (নোয়াখালী-১) এইচ এম ইব্রাহীম কে ১ নং বিবাদী বলে উল্লেখ করেন। এছাড়াও অভিযোগে আরো ৪ জনের নামসহ অজ্ঞাতনামা ৮/১০ কে বিবাদী করা হয়। অভিযোগকারী বাদী নাঈম হাসান জানান, নোয়াখালীর সোনাইমুড়ির মানিক্যনগর মহিলা দাখিল মাদ্রাসার নব নির্মিত একাডেমিক ভবনের নামফলক স্থাপন করার পর পর ই একটি মহল ষড়যন্ত্র শুরু করে এবং মাদ্রাসার কাজ বন্ধ করার জন্য বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধমকি দেয়া শুরু করে। আমিসহ স্থানীয় কয়েক জন এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই। আমিসহ কয়েকজন প্রতিবাদ করায় আমাদের স্থানীয় সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহীম নির্দেশ এ পারভেজ, আলাউদ্দিন মেম্বার ও মো. রুবেলসহ অজ্ঞাত নামা আরো কয়েক জনসহ অস্ত্রসহ দলবল নিয়ে আমার বসতবাড়ীতে হামলা চালায়। আমাকে প্রাণে হত্যার হুমকি ধমকি দিয়ে যা্চ্ছে। বাদী নাঈম হাসান বলেন, আমি স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গকে বিষয়টি জানিয়েছি। এবং থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি।
এ বিষয়ে সোনাইমুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. গিয়াস উদ্দিন জানানআমরা একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এটি তদন্ত করে দেখবো। এখন বিস্তারিত কিছু বলা যাচ্ছেনা।

এদিকে, মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, আমিশাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক হুমায়ুন কবির, মহিলা ইউপি সদস্য ছায়েরা খাতুন।
মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে মাদ্রাসার সামনের সড়ক প্রদক্ষিন করে মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়।