নিউজ ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রায়ের প্রতিবাদে বায়তুল মোকাররম মসজিদের সামনে থেকে পল্টন পর্যন্ত বিক্ষোভ-মিছিল করছিলো দলের কর্মীরা।

শুক্রবার রাজধানীতে জুমার নামাজের পর বিএনপির নেতা-কর্মীদের মিছিলটি নয়াপল্টনে দলের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয়। কিন্তু মিছিলটির নেতৃত্ব দেয়া মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ঘটনা স্থল থেকে উধাও হয়ে যান।

এ প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুলে ঘনিষ্ট একজন বলেন, খালেদা জিয়ার কারাদণ্ড হবার পর থেকে মির্জা ফখরুল কেমন জানি চুপসে গিয়েছেন। এর আগে আমাদের আরেক নেতা রুহুল কবীর রিজভী যে কান্না দিয়েছেন, তাতে মির্জা ফখরুল আরো ভয় পেয়ে গিয়েছেন। তাই হয়তো তিনি পালিয়েছেন।
উল্লেখ্য, বিএনপির এ বিক্ষোভ মিছিলো আরো উপস্থিত উপস্থিত থাকা ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুকে ঘটনা স্থলে খুঁজে পাওয়া যায় নি।

বিএনপির একাধিক নেতা এ বিষয়ে বলেন, ক্ষমতায় থাকা কালে বিএনপি অনেক দুর্নীতি করেছে। দেশ সারা বিশ্বে দুর্নীতিতে প্রথম স্থান অধিকার করেছিলো। তাই এখন নেতা কর্মী সাহস করে কোথাও দাঁড়াতে পারে না। খালেদা জিয়ার কারাদণ্ডের পর সবার মনে অতঙ্ক তৈরি হয়েছে এবার হয়তো তার পালা। তাই আমাদের নেতা কর্মীরা আগেই পালিয়ে যাচ্ছেন।

এর আগে, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে সরকারি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালত-৫–এ রায় ঘোষণা করেন। বয়স ও সামাজিক মর্যাদার কথা বিবেচনা করে খালেদা জিয়ার পাঁচ বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। যদিও একই অভিযোগে তাঁর বড় ছেলে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ পাঁচজনের ১০ বছর সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।